কিমের সম্পত্তি জব্দের প্রস্তাব যুক্তরাষ্ট্রের

বৃহস্পতিবার, ০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ (১৮:৫৫)
কিমের-সম্পত্তি-জব্দের-প্রস্তাব-যুক্তরাষ্ট্রের

কিম জং-উনের সব সম্পত্তি জব্দের প্রস্তাব

উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নতুন করে নিষেধাজ্ঞা জারির প্রস্তাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র—দেশটিতে তেল সরবরাহ বন্ধ রাখার পাশাপাশি প্রেসিডেন্ট কিম জং-উনের সব সম্পত্তি জব্দের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে।

বিবিসি অনলাইনের খবরে বলা হয়েছে, গত রোববার পিয়ংইয়ংয়ের সর্বশেষ পারমাণবিক বোমা পরীক্ষার জবাবে যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের একটি খসড়া প্রস্তাব তৈরি করে। সেই প্রস্তাব বিবেচনার জন্য জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে উপস্থাপন করা হবে। নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য রাষ্ট্রগুলো এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে।

যুক্তরাষ্ট্রের খসড়ায় উত্তর কোরিয়ায় তেল সরবরাহের ওপর নিষেধাজ্ঞা এবং সেখান থেকে টেক্সটাইল পণ্য ক্রয়ের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞার আহ্বান জানানো হয়েছে।

সেই সঙ্গে কিম জং-উনের সব সম্পত্তি জব্দ করে তার বিদেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা বলা হয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার আয়ের সবচেয়ে বড় দুটি উৎস হলো রেমিট্যান্স এবং টেক্সটাইল রপ্তানি থেকে প্রাপ্ত অর্থ।

খসড়ায় আরো উল্লেখ করা হয়েছে, বিদেশে উত্তর কোরিয়ার শ্রমিকদের নিয়োগ নিষিদ্ধ করতে হবে।

গত সপ্তাহে উত্তর কোরিয়া দাবি করে যে তারা দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র শক্তিশালী হাইড্রোজেন বোমা তৈরি করেছে। এর আগে গত আগস্ট মাসে জাপানের জনবহুল অঞ্চলে একটি ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করেছে।

উত্তর কোরিয়ার এই ক্রমবর্ধমান পারমাণবিক বোমা পরীক্ষার পেছনে রাশিয়া ও চীনের মদদ রয়েছে বলে সন্দেহ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। উভয় দেশই উত্তর কোরিয়ায় অন্যতম তেল সরবরাহকারী এবং দুটি দেশেরই নিরাপত্তা পরিষদে ভেটো প্রয়োগের ক্ষমতা আছে।

এই সপ্তাহের শুরুতে কাউন্সিলের বৈঠকে জাতিসংঘে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত নিকি হেলি বলেন, ২০ বছর ধরে পিয়ংইয়ং পারমাণবিক অস্ত্রে বিনিয়োগ করে যাচ্ছে। বারবার নিষেধ করা সত্ত্বেও তারা কারও কথা আমলে নেয়নি। তিনি বলেন, ‘যথেষ্ট হয়েছে। এখন আমরা দৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহণ করব।’

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক চায় চীন

জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন মানানগাগওয়া

মিয়ানমারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ইঙ্গিত টিলারসনের

নিজ দেশ লেবানন ফিরলেন হারিরি

অবশেষে পদত্যাগ করলেন মুগাবে

তিন দিনের সফরে আসছেন পোপ ফ্রান্সিস